• সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৮:১০ অপরাহ্ন
সর্বশেষ
দেবিদ্বার উপজেলার রাজামেহের বাজারে ভুয়া ডাক্তার সনাক্ত এলাহাবাদ ইউনিয়নের কাচিসাইর এলাকায় অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ দেবিদ্বারে ভেজাল খাদ্য উৎপাদন, ৪ লাখ টাকা জরিমানা আব্দুল্লাহপুরে অবমুক্ত হলো শতবর্ষী খালঃ কৃষকের মুখে হাসি দেবিদ্বার উপজেলার পূর্ব ফতেহাবাদ গ্রামে পা-বাঁধা অবস্থায় গৃহিণীর লাশ উদ্ধার কাল থেকে শুরু হচ্ছে দেবিদ্বার উপাজেলার ইউনিয়ন পর্যায়ে গণটিকাদান ক্যাম্পেইন (২য় ডোজ) ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন- ফতেহাবাদ ইউনিয়নে আলোচনায় রয়েছেন যেসব প্রার্থী দেবিদ্বার অফিস ইন-চার্জের নেতৃত্বে চুরি হওয়া মোবাইল উদ্ধার দেবিদ্বারে নারীকে লাঠিপেটার ভিডিও ভাইরালঃ র‌্যাব পুলিশের অভিযানে আটক ৪ আশানপুর নবজাগরণ সংঘের উদ্যোগে রাস্তা সংস্কার

ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন- ফতেহাবাদ ইউনিয়নে আলোচনায় রয়েছেন যেসব প্রার্থী

নিসস্ব প্রতিবেদক / ৪৩৪ ভিউ
তারিখ- সোমবার, ৬ সেপ্টেম্বর, ২০২১

ক্রমেই এগিয়ে চলছে ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনের তারিখ ঘোষণার দিন। সেই সাথে থেমে নেই প্রার্থীদের প্রচার প্রচারণা ও সামাজিক কর্মকাণ্ড। স্থানীয় নির্বাচন হওয়ায় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন নিয়ে মানুষের আগ্রহের কমতি নেই। ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন ঘিরে তাই টানটান উত্তেজনা থাকে। কুমিল্লা জেলার দেবিদ্বার উপজেলার ফতেহাবাদ ইউনিয়নের সম্ভাব্য প্রার্থীদের নিয়ে আমাদের আজকের এ প্রতিবেদন। ইউনিয়ন ঘুরে এসে আমাদের স্থানীয় প্রতিনিধি জানাচ্ছেন ইউনিয়নের সর্বশেষ অবস্থা।

খন্দকার এম এ সালামঃ

ফতেহাবাদ ইউনিয়নের সবচেয়ে জনপ্রিয় প্রার্থীর নাম খন্দকার এম এ সালাম। তিনি গত ৪ বার ইউনিয়ন চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন। গত ২০ বছরে তিনি ইউনিয়নে বেশ কিছু উন্নয়নমূলক কাজ করেছেন। রাস্তা ঘাট, স্কুল-কলেজ, শিক্ষা-দিক্ষায় ব্যাপক উন্নতি সাধিত হয়েছে। তিনি চেয়ারম্যান থাকা কালীন তার বিরুদ্ধে তেমন একটা অনিয়মেরঅভিযোগ নেই। বলা চলে  তিনি ফতেহাবাদের মানুষের নিকট সুপরিচিত এবং জনপ্রিয় একজন চেয়ারম্যান। কথিত আছে তিনি মানুষের দুয়ারে দুয়ারে গিয়ে মানুষের খোঁজ খবর রেখেছেন। সেই হিসেবে এখনো তিনি ইউনিয়নে জনপ্রিয় একজন প্রার্থী। স্থানীয় লোকজনের মতে ” সালাম চেয়ারম্যান একজন ভালো মানুষ। আমরা যেকোন বিপদে তাকে কাছে পেয়েছি”

কে এম কামরুজ্জামান মাসুদঃ

কে এম কামরুজ্জামান মাসুদ ছিলেন কোম্পানিগঞ্জ বদিউল আলম ডিগ্রী কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক সাহিত্য বিষয়ক সম্পাদক, গুলশান থানার ১৯ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাবেক প্রচার সম্পাদক, আশানপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সাবেক সভাপতি এবং জয়পুর এমবি মাদ্রাসার সাবেক সহ সভাপতি। কে এম কামরুজ্জামান ইদানিং রাজনীতির নাঠে বেশ সক্রিয়। বিভিন্ন সামাজিক সেবামূলক কাজে তাকে অংশগ্রহণ করতে দেখা যায়। তিনি মাদকের বিরুদ্ধে শক্ত অবস্থানের কথা ব্যক্ত করেন।

আরও পড়ুন- দেবিদ্বার অফিস ইন-চার্জের নেতৃত্বে চুরি হওয়া মোবাইল উদ্ধার

শাহনাজ মোস্তফাঃ

শাহনাজ মোস্তফা ফতেহাবাদ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের আলোচিত চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী। তিনি বর্তমান চেয়ারম্যান খন্দকার এম এ সালামের ছোট ভাই বিশিষ্ট ব্যবসায়ী খন্দকার গোলাম মোস্তফা সাহেবের স্ত্রী। জনাবা শাহনাজ মোস্তফা আগে থেকে রাজনীতির সাথে যুক্ত না থাকলেও ইদানিং তিনি রাজনীতির মাঠে বেশ জোরালো ভাবে নেমেছেন। তিনি ফতেহাবাদ (দঃ) সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সাবেক সহকারী শিক্ষিকা। তিনি ইউনিয়নে বেশ কিছু উন্নয়নমূলক কাজ করেছেন। উল্লেখ্য তিনি বর্তমানে দেবিদ্বার উপজেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক পদে রয়েছন। স্থানীয় লোকজনের সাথে আলোচনা চলাকালে একজন বলেন, “শাহনাজ মোস্তফা একজন ভালো মানুষ। তিনি সমাজের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজ করে যাচ্ছেন। আমরা তার জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী”। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন বলেন, শহনাজ মোস্তফা দুর্নীতির বিরুদ্ধে কথা বলেন কিন্তু দুর্নীতির দায়ে বরখাস্ত হওয়া এরশাদ মেম্বার তার মিটিং মিছিলে সবার আগে থাকে”

ফতেহাবাদ ইউনিয়নের নির্বাচনে তুমুল প্রতিদ্বন্দ্বীতা হবে তা বলার অপেক্ষা রাখেনা। তবে কে জয়ী হবেন তা নির্ভর করছে নির্বাচনের সর্বশেষ পরিস্থিতির ওপর এবং আওয়ামীলীগ কাকে মনোনয়ন দেয় সেই বিষয়ের ওপর।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

এই সেকশনের আরও খবর পড়ুন

সাম্প্রতিক পোস্ট