• রবিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২২, ০৬:৩৮ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ
৬ নং ফতেহাবাদ ইউনিয়ন পরিষদে খন্দকার এম এ সালাম চেয়ারম্যান জনপ্রিয়তায় শীর্ষে দেবিদ্বার উপজেলার রাজামেহের বাজারে ভুয়া ডাক্তার সনাক্ত এলাহাবাদ ইউনিয়নের কাচিসাইর এলাকায় অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ দেবিদ্বারে ভেজাল খাদ্য উৎপাদন, ৪ লাখ টাকা জরিমানা আব্দুল্লাহপুরে অবমুক্ত হলো শতবর্ষী খালঃ কৃষকের মুখে হাসি দেবিদ্বার উপজেলার পূর্ব ফতেহাবাদ গ্রামে পা-বাঁধা অবস্থায় গৃহিণীর লাশ উদ্ধার কাল থেকে শুরু হচ্ছে দেবিদ্বার উপাজেলার ইউনিয়ন পর্যায়ে গণটিকাদান ক্যাম্পেইন (২য় ডোজ) ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন- ফতেহাবাদ ইউনিয়নে আলোচনায় রয়েছেন যেসব প্রার্থী দেবিদ্বার অফিস ইন-চার্জের নেতৃত্বে চুরি হওয়া মোবাইল উদ্ধার দেবিদ্বারে নারীকে লাঠিপেটার ভিডিও ভাইরালঃ র‌্যাব পুলিশের অভিযানে আটক ৪

৬ নং ফতেহাবাদ ইউনিয়ন পরিষদে খন্দকার এম এ সালাম চেয়ারম্যান জনপ্রিয়তায় শীর্ষে

নিসস্ব প্রতিবেদক / ১৩০ ভিউ
তারিখ- বৃহস্পতিবার, ২৫ নভেম্বর, ২০২১

শীঘ্রই অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ৬ নং ফতেহাবাদ ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন। নির্বাচনকে সামনে রেখে প্রার্থীদের দৌড়ঝাঁপ শুরু হয়েছে। আমরা ফতেহাবাদ ইউনিয়নের সার্বিক অবস্থা জানার জন্য সরেজমিনে ইউনিয়নের সার্বিক তথ্য সংগ্রহ করতে নামি।

বাংলাদেশ আওয়ামিলীগ মনোনীত প্রতীক নিয়ে নির্বাচিত চেয়ারম্যান হিসেবে ন্যায় নিষ্ঠার সাথে দীর্ঘ ২৩ বছর ৬নং ফতেহাবাদ ইউনিয়ন পরিচালনা করে আসছেন কুমিল্লা-৪ দেবিদ্বার আসনের সংসদ সদস্য রাজী মোহাম্মদ ফখরুল ইসলাম মহোদয়ের বিশ্বস্ত ব্যক্তি চার চার বারের নির্বাচিত চেয়ারম্যান।

রাজী মোহাম্মদ ফখরুল ইসলাম এমপি মহোদয়ের স্বপ্নকে বুকে ধারণ করে ইতিমধ্যে তিনি ফতেহাবাদ ইউনিয়ন বাসীকে তার দক্ষতার মাধুর্যতা দেখিয়েছেন। পাশাপাশি ফতেহাবাদ ইউনিয়নের সফল ও শ্রেষ্ঠ চেয়ারম্যান হিসাবে ভূষিত হয়ে যথেষ্ট সুনাম অর্জন করছেন।

তিনি সংসদ সদস্য রাজী মোহাম্মদ ফখরুল ইসলাম মহোদয়ের নির্দেশে ৬ং ফতেহাবাদ ইউনিয়নকে দুর্নীতি এবং মাদকের বিরুদ্ধে জনগণকে সোচ্চার করার আপ্রাণ চেষ্টা চালাচ্ছেন।

তিনি অসহায় ও সেবাগ্রহণ-কারীদের কষ্ট লাগবের কথা ভেবে অস্থায়ী কার্যালয় তৈরি করেছেন। যেখানে দিন রাত চব্বিশ ঘন্টা অসহায় মানুষের কষ্টের কথা শুনে তা সমাধান করার চেষ্টা করেন।

সরজমিনে নির্বাচনী এলাকা ঘুরে দেখা যায়, বর্তমান চেয়ারম্যানের অধীনে উন্নয়নের ছোয়া লেগেছে অনেক। তিনি নির্বাচিত হ‌ওয়ার পর, এখন পর্যন্ত এলাকায় বড় কোনো ধরনের জটিলতা দেখা যায়নি। তাই এই সফল ও শ্রেষ্ঠ মানুষকেই আবারোও চেয়ারম্যান হিসাবে দেখতে চান স্থানীয় লোকজন। তিনি এলাকায় মাদক নির্মূলসহ অনেকগুলো উন্নয়নের কাজ করেছেন এবং যুব সমাজকে নিয়ে নতুন কিছু করার আপ্রাণ চেষ্টা চালাচ্ছেন।

এলাকাবাসী বলেন, চেয়ারম্যান খন্দকার এম.এ ছালাম একজন ব্যক্তিই নয় তিনি আমাদের একটি প্রতিষ্ঠান। তিনি আমাদের অভিভাবক হিসেবে ৬নং ফতেহাবাদ ইউনিয়ন পরিষদের যে উন্নয়ন করে যাচ্ছেন তা আমাদের ছেলে মেয়েদের কাছে মডেল হয়ে থাকবে ।

বর্তমানে তিনি ফতেহাবাদ আওয়ামিলীগের সহ সভাপতি এবং একজন সফল ও শ্রেষ্ঠ চেয়ারম্যান। বর্তমানের মতো আগামীতেও তিনি মানুষের পাশে থেকে কাজ করে ইউনিয়ন পরিষদের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখবে আশা করে খন্দকার এম.এ ছালামকে চার, চারবারের মতো আবারো ইউনিয়ন চেয়ারম্যান হিসেবে পেতে চাই।

সাংবাদিকদের দেওয়া একান্ত সাক্ষাৎকারে তিনি তার উল্লেখ যোগ্য কাজ কর্মের কথা তুলে ধরে বলেন, কুমিল্লা-৪ দেবিদ্বার আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য রাজী মোহাম্মদ ফখরুল ইসলাম এম.পি মহোদয়ের সার্বিক সহযোগিতায় এবং তার দেওয়া দিক নির্দেশনায় এ জনপদের ভৌত অবকাঠামো উন্নয়নের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি “প্রতিটি গ্রাম হবে শহর” তা বাস্তবায়নের জন্য জনগনকে পাশে রেখে তাদের চাহিদাকে গুরুত্ব দিয়ে উন্নয়ন পরিকল্পনা বাস্তবায়নের চেষ্টা করে করছি।

তিনি আরো বলেন, আমি চেয়ারম্যান থাকা অবস্থায় নিষ্ঠার সাথে উন্নয়নের কাজ করার চেষ্টা করেছিলাম এবং করছি। কতটুকু পেরেছি সেটা এই এলাকার মানুষ ভালো জানে। আমি আবারও জনগণের পাশাপাশি চেয়ারম্যান পদের প্রত্যাশী। যদি আমি পূনরায় চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত হই তবে আমার থেকে যাওয়া অসম্পূর্ণ কাজ গুলো সম্পূর্ণ করে নতুন কাজের প্রতি দৃষ্টিপাত করবো।

আমি চাই আমার এলাকার গরীব দুঃখী অসহায় মেহনতি মানুষের জন্য কিছু করতে। আমি তাদের সন্তান, আমি আগামীতে পূনরায় চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত হলে রাস্তাঘাট শিক্ষা-দীক্ষার ব্যাপক উন্নয়নসহ অত্র ইউনিয়নকে পরিপূর্ণ ডিজিটাল আদর্শিক ইউনিয়ন হিসেবে গড়ে তুলবো। বিশেষ করে সমাজের অবক্ষয় রোধে মাদকের ব্যাপারে সরকার কর্তৃক ঘোষিত জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করবো “ইনশাল্লাহ”।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

এই সেকশনের আরও খবর পড়ুন

সাম্প্রতিক পোস্ট